প্রথমবারের মতো ওয়ানডে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের মেয়েরা

প্রকাশিত: ৬:৪৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৭, ২০২১ | আপডেট: ৬:৪৮:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৭, ২০২১
প্রথমবারের মতো ওয়ানডে বিশ্বকাপে বাংলাদেশের মেয়েরা

প্রথমবারের মতো ওয়ানডে বিশ্বকাপ নিশ্চিত হয়েছে বাংলাদেশের মেয়েদের।

করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্টের কারণে জিম্বাবুয়ের হারারেতে চলমান মেয়েদের বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব বাতিলের ঘোষণা দিয়েছে আইসিসি। যা আশীর্বাদ হয়ে এসেছে বাংলাদেশের জন্য। চূড়ান্ত পর্বের টিকিট পেয়ে গেছে সালমা খাতুন, জাহানারা আলমরা।

এর আগে চারবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেললেও ওয়ানডে বিশ্বকাপে কখনো খেলা হয়নি বাংলাদেশের মেয়েদের। দুইবার বাছাইপর্ব খেলে তারা প্রতিবারই পঞ্চম হয়।

দুই গ্রুপে ভাগ হয়ে ৯টি দল জিম্বাবুয়েতে বাছাই পর্ব খেলছিল। এখান থেকে তিন দল যাওয়ার কথা ছিল মূল পর্বে। কিন্তু বাছাই পর্ব বাতিল হওয়ায় এখন র‌্যাঙ্কিংয়ের ভিত্তিতে তিনটি দল নির্বাচন করেছে আইসিসি।

র‌্যাঙ্কিংয়ে পাঁচ নম্বরে থাকার সুবাদে মূল পর্বের টিকিট পেয়েছে বাংলাদেশ। সঙ্গে সপ্তম ও অষ্টম স্থানে থাকা ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও পাকিস্তানও থাকছে মূল পর্বে।

স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে আগে থেকেই মূল পর্ব নিশ্চিত করে রেখেছিল অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ভারত।

বাংলাদেশ, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও পাকিস্তানের সঙ্গে পরবর্তী চক্রে আইসিসি উইমেন্স চ্যাম্পিয়নশিপ নিশ্চিত হয়েছে শ্রীলঙ্কা ও আয়ারল্যান্ডের।

চলতি বিশ্বকাপ বাছাইয়ে বাংলাদেশের মেয়েরা দারুণ ছন্দে ছিল। শক্তিশালী পাকিস্তানকে ৩ উইকেটে হারিয়ে আসর শুরু করে নিগার সুলতানা জ্যোতির দল। এরপর যুক্তরাষ্ট্রকে হারায় ২৭০ রানের বড় ব্যবধানে।

তৃতীয় ম্যাচে অবশ্য ডি/এল মেথডে থাইল্যান্ডের কাছে হেরে যায় বাংলাদেশ। সোমবার চতুর্থ ও শেষ ম্যাচে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলার কথা ছিল তাদের। কিন্তু তার আগেই আসর স্থগিতের ঘোষণা এসেছে।

শনিবার বাছাই পর্বে মোট তিনটি ম্যাচ ছিল। পাকিস্তান-জিম্বাবুয়ে ও যুক্তরাষ্ট্র-থাইল্যান্ড ম্যাচ যথাসময়ে শুরু হয়। তবে শ্রীলঙ্কা-ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচ শুরু হতে পারেনি। লঙ্কান দলের সাপোর্ট স্টাফের শরীরে করোনা শনাক্ত হওয়ায় ম্যাচটি বালিত হয়।

এরপর টুর্নামেন্টই বাতিল করে দিয়ে আইসিসি জানায়, করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্টের কারণে আফ্রিকার বেশ কিছু দেশের সঙ্গে ভ্রমণে কড়াকড়ি আরোপ করেছে অনেক দেশ। যার মধ্যে রয়েছে জিম্বাবুয়েও। তাই পরিস্থিতি আরো খারাপ হওয়ার আগেই দলগুলোকে দেশে পাঠানোর স্বার্থে আসরটি বাতিল করা হচ্ছে।

নিউজল্যান্ডে আগামী বছর ৪ মার্চ শুরু হবে মেয়েদের ওয়ানডে বিশ্বকাপ। ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ৩ এপ্রিল।